জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টাইগারদের দাপুটে জয়

বার্তা ডেস্কঃ হারারেতে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ২৭৭ রানের বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে মাত্র ১২১ রানেই গুটিয়ে গেছে স্বাগতিকরা। ফলে ১৫৫ রানের বড় জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজটি শুরু করলো বাংলাদেশ। লিটন দাসের দুর্দান্ত সেঞ্চুরির পর ঘূর্ণিজাদুতে সাকিব নিয়েছেন ৫ উইকেট। তবে জিম্বাবুয়ের শেষ ব্যাটসম্যান টিমচিন মারুমা ব্যাট করতে পারেননি চোটের কারনে। তাই শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতে নামা নাগারভাকে ফিরিয়ে ৫ উইকেট পূর্ণ করেন সাকিব আল হাসান।

হারারেতে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপদে পড়ে বাংলাদেশ। স্কোরবোর্ডে কোন রান তোলার আগেই আউট হয়ে যান দলীয় অধিনায়ক তামিম ইকবাল। ওয়ানডেতে ক্যারিয়ারের ১৯তম বারের মতো ‘গোল্ডেন ডাক’ মেরে আউট হন তিনি। বাংলাদেশের পক্ষে এখন সবচেয়ে শূন্য রানে আউট হওয়া ব্যাটসম্যানও তামিম।

ব্যাট হাতে আরো একবার ব্যর্থ সাকিব আল হাসান। দলীয় ৩২ রানে আউট হয়ে যান তিনি। তার সংগ্রহ ১৯ রান। সমান ১৯ রান করে আউট হয়ে যান মোহাম্মদ মিঠুন। মাত্র ৫ রান করে সাজঘরে ফেরেন মোসাদ্দেক সৈকত। দলীয় ৭৪ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে টাইগাররা।

সেখান থেকে হাল ধরেন লিটন দাস, সাথে রিয়াদ। দু’জনে মিলে গড়েন ৯৩ রানের জুটি। ৩৩ রান করে আউট হয়ে যান অভিজ্ঞ মাহমুদউল্লাহ। একপ্রান্তে দাঁড়িয়ে ক্যারিয়ারের ৪র্থ সেঞ্চুরি তুলে নেন লিটন দাস। তবে সেঞ্চুরির পর বেশিক্ষণ টেকেননি তিনিও। ১০২ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন।

শেষদিকে ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন আফিফ হোসেন ধ্রুব ও মেহেদি মিরাজ। দুই তরুণের ৫৮ রানের জুটিতে টাইগারদের স্কোরবোর্ড সমৃদ্ধ হয়। তবে পরপর ২ বলে আউট হয়ে যান দু’জনই। ২৪ বলে ২৬ রান করেন মিরাজ। আর ৩৫ বলে ৪৫ রান করে আউট হন আফিফ।

পরের বলেই আউট হয়ে যান তাসকিনও। তবে রানআউট হওয়ায় হ্যাটট্রিক হলো না জিম্বাবুইয়ান পেসার জংউইর। শেষ ওভারে সাইফুদ্দিনের ব্যাটে চড়ে ২৭৬ রানের সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ।

জবাব দিতে নেমে শুরুতেই বাংলাদেশের বোলারদের তোপের মুখে পড়ে জিম্বাবুয়ে। দলীয় ৪ রানে অভিষিক্ত ওপেনার মারুমানিকে হারায় তারা। সাইফউদ্দিন তুলে নেন ১ম উইকেট।

স্বাগতিকদের ২য় উইকেটটি তুলে নেন তাসকিন আহমেদ। আর ৩য় উইকেটটি নেন আরেক পেসার শরীফুল ইসলাম। এরপর বাকি সবকটি উইকেটই তুলে নেন সাকিব আল হাসান। মাঝে জংউই হন রানআউট। ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৩য়বারের মতো ৫ উইকেট তুলে নেন সাকিব। রান খরচ করেন ৩০। ওয়ানডেতে তার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং ফিগার ৫/২৯। দলের বিপদে হাল ধরে সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন লিটন দাস।

Share This Post

Post Comment