“ভালোবাসা দিবস” হোক সকল মায়ের উদ্দেশ্যে

বার্তা ডেস্কঃ ভালবাসা দিবস মানে কি শুধুই প্রেমিক-প্রেমিকার একে অপরের প্রতি ভালবাসা প্রকাশের দিন? কিন্তু দুঃখের বিষয় ভালোবাসা দিবসের কথা এলে আমরা সকলে এক বাক্যে ধরেই নিই- দিনটি বুঝি কেবলই প্রেমিক-প্রেমিকা বা স্বামী-স্ত্রী কিংবা ভালোবাসার মানুষটির জন্য বলা হয়েছে। অবশ্য এটা ঠিক, ভালোবাস বা ভালোবাসা দিবস ১৪ ফেব্রুয়ারির জন্যই নয়, শুধু স্বামী-স্ত্রী; কিংবা প্রেমিক-প্রেমিকার জন্যও নয়, এটা সার্বজনীন, সেই সাথে সারা বছরের জন্যই।

১৪ ফেব্রুয়ারি, ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে একটু আয়োজন করে জানানো ছাড়া আর কিছুই নয়। তাহলে সার্বজনীন হলে এ দিবস নিয়ে সকল আয়োজন বা প্রচার কেবল প্রেমিক-প্রেমিকা বা স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে কেন? এখানে তো বাবা-মা, ভাই-বোনও আসতে পারেন। বিশেষ করে মা’কে বাদ দিয়ে ভালোবাসা উদযাপন করাটাই বা কেমন হয়? তাছাড়া বাবা-রা কেন ভালোবাসা থেকে বঞ্চিত থাকবে।

তবে এ নিয়ে অনেকেই দ্বিমত পোষণ করতে পারেন যে, মা’র জন্য তো মা দিবস রয়েছে। থাকুক। তবুও আসুন এবারের ভালোবাসা দিবসের আয়োজনে শ্রদ্ধা আর ভালোবাসার সঙ্গে উপহার দিতে পারেন বাবা-মাকেও। ভালোবাস দিবস উপলক্ষে মা-বাবকে নিয়ে বেড়াতে যেতে পারেন বা খেতে যেতে পারেন।

প্রিয় মা, এই সুন্দর পৃথিবীতে ভালোবাসা পাওয়ার যোগ্য একমাত্র মা। তিনি কত-রাত না ঘুমিয়ে আমাদের বুকে জড়িয়ে বসে ছিলেন। কত-দিন নিজে ক্ষুধার্থ থেকেও না খেয়ে আমাদের মুখের খাবার তুলে দিয়েছেন। সন্তান একটুখানি ব্যথা পেলে ভিজে উঠেছে তার চোখ। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ অভিনেতার মতো মুখ বুঝে সব সহ্য করেও কখনো যদি জিজ্ঞেস করা হয় কেমন আছো মা? তিনি উত্তর দিবেন ভালো আছি । পৃথিবীর সব ভালোবাসা তুচ্ছ হয়ে যায় মায়ের হৃদয় কেঁপে ওঠা এই ভালোবাসার কাছে। সেই মা কে ভালো রাখতে আমরা কিছু প্রয়াস করতে পারি। এই ভালোবাসা দিবসে প্রিয় মানুষ গুলোকে একসাথে করে তাকে সারপ্রাইজ দেয়া যেতে পারে। তার প্রিয় রং এর একটি শাড়ি কিনে আনতে পারেন। প্রিয় মা-এর জন্য আপনি যাই কিনে থাকেন আপনার দেয়া সব কিছুই মা-এর কাছে অনেক মূল্যবান ।

প্রতিটি “ভালোবাসা দিবস” হোক প্রিয় মা-দের ঘিরেই। পৃথিবীতে যদি কেউ বেশি ভালোবাসে তিনি হচ্ছেন মা। তাই, চলুন এবারের ভালোবাসা দিবসটি পালন হোক সব মায়ের উদ্দেশ্যে।

Share This Post

Post Comment