বেড়াতে গিয়ে গাড়ির ভেতরে ধর্ষণের শিকার এক নারী

বার্তা ডেস্কঃ গাজীপুরে বেড়াতে নিয়ে এক পার্লার ব্যবসায়ী নারীকে (৩১) প্রাইভেট কারের ভেতর ধর্ষণ করেছে গাড়িটির চালক। ছেলে ও বান্ধবীকে নিয়ে অভিযুক্তের সঙ্গে বেড়াতে গিয়েছিলেন ভুক্তভোগী এই নারী।  এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) বিকেলে অভিযুক্ত চালক পিন্টু মিয়াকে (২৯) আটক করেছে পুলিশ।

পিন্টু মিয়ার বাড়ি জেলার কালিয়াকৈর উপজেলার নওলা এলাকায়। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব-এ খোদা সাংবাদিকদের এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

কাশিমপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এ কে মানিক জানান, বুধবার সন্ধ্যার পর কালিয়াকৈরের একটি মার্কেটে কেনাকাটা শেষে বান্ধবীর সঙ্গে বাসায় ফিরছিলেন ওই নারী। এ সময় তার সঙ্গে পূর্ব পরিচিত পিন্টু মিয়ার দেখা হয়। সে ওই দুই নারীকে বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে গাড়িতে তুলে নেয়। গাড়িতে ওঠার পর পিন্টু বেড়াতে যাওয়ার প্রস্তাব দিলে ওই নারী রাজি হন।

পরে ছেলে ও বান্ধবীকে নিয়ে পিন্টুর সঙ্গে বেড়াতে যান ভুক্তভোগী নারী। ছেলে হালিম খেতে বায়না ধরলে তারা জিরানীর উদ্দেশ্যে রওনা হন। ওই নারীর বান্ধবী ও ছেলে গাড়ি থেকে নেমে হালিমের দোকানে গেলে গাড়িটিকে নির্জন এলাকায় নিয়ে যায় পিন্টু। সেখানেই তাকে ধর্ষণ করা হয়।

এসআই মানিক আরও জানান, বাসায় ফিরে ওই নারী ঘটনাটি স্বজনদেরকে বললে তারা জাতীয় জরুরি সহায়তা নম্বর ৯৯৯-এ জানান। বৃহস্পতিবার সকালে ভুক্তভোগী নারী মামলা করতে ঢাকার আশুলিয়া থানায় যান।
এদিকে, খবর পেয়ে সমঝোতার জন্য সেখানে গেলে পুলিশ পিন্টুকে আটক করে। ঘটনাস্থল গাজীপুরে হওয়ায়, তাকে জিএমপির কাশিমপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে আশুলিয়া থানা। এ ঘটনায় কাশিমপুর থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Share This Post

Post Comment

%d bloggers like this: