রোহিঙ্গা গণহত্যা, মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলার রায় আজ

Gambia’s Justice Minister Abubacarr Tambadou and Myanmar’s leader Aung San Suu Kyi attend a hearing in a case filed by Gambia against Myanmar alleging genocide against the minority Muslim Rohingya population, at the International Court of Justice (ICJ) in The Hague, Netherlands December 10, 2019. REUTERS/Yves Herman

আলোচিত রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলার রায় দেবে হেগের আন্তর্জাতিক বিচার আদালত (আইসিজে)। গত নভেম্বরে ইসলামি সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক আদালতে রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলাটি দায়ের করে আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) পিস প্যালেসে হেগের সময় সকাল ১০টায় (বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টা) আদালত প্রকাশ্যে ওই আদেশ দেবেন। এর আগে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার করা ওই মামলার শুনানি হয় গত বছরের ১০ থেকে ১২ ডিসেম্বর।

এই রায় শোনার জন্য গোটা বিশ্ববাসী বিশেষ করে মিয়ানমারের রোহিঙ্গা সংখ্যালঘু সম্প্রদায় অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন। গাম্বিয়া আর্জিতে ৬টি অন্তর্বর্তী আদেশের জন্য আবেদন করেছিল। তবে গাম্বিয়ার আর্জির ছয়টি পদক্ষেপের সবগুলোর বিষয়ে আদালতের আদেশ দেয়ার সম্ভাবনা কম। গণহত্যা বন্ধসহ রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় জরুরি যেসব পদক্ষেপ চাওয়া হয়েছে সে ব্যাপারে আদেশ আসতে পারে।

আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা নিষ্পত্তি হতে বহু বছর সময় লাগে। তাই মামলা দায়েরকারী মূল মামলার পাশাপাশি অন্তর্বর্তীকালীন প্রতিকার চেয়েও আবেদন করেন। যার প্রেক্ষেতে এই অন্তর্বর্তী আদেশ দিতে রাজি হয়েছে আইসিজে।

২০১৭ সালের আগস্টে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের ওপর সহিংসতা, ধর্ষণ ও নির্যাতন চালায় মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও উগ্র বৌদ্ধরা। জীবন বাঁচাতে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেন লাখ লাখ রোহিঙ্গা। ওই ঘটনাকে গণহত্যা আখ্যা দিয়ে ২০১৯ সালের ১১ নভেম্বর আইসিজেতে মামলা করে গাম্বিয়া।

মিয়নিমার নেত্রী অং সান সু চি নিজের দেশ ও সেনাবাহিনীর পক্ষে আত্মপক্ষ সমর্থন করে বলেন, তারা রোহিঙ্গাদের ওপর কোনো নির্যাতন চালায়নি। রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার মুখেই নাকি লাখ লাখ রোহিঙ্গা দেশ ছেড়ে বাংলাদেশ আশ্রয় নিয়েছে।

Share This Post

Post Comment

%d bloggers like this: