বাংলা একাডেমির চার পুরস্কারের নাম ঘোষণা

বার্তা ডেস্কঃ  ব্যক্তি ও পারিবারিক পৃষ্ঠপোষণা এবং বাংলা একাডেমি পরিচালিত চার পুরস্কারের এবারের বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেছে একাডেমি। পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন ‘মযহারুল ইসলাম কবিতা পুরস্কার ২০১৯‘  কবি মহাদেব সাহা, সা‘দত আলি আখন্দ সাহিত্য পুরস্কার পাপড়ি রহমান, মেহের কবীর বিজ্ঞান সাহিত্য পুরস্কার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের সাবেক অধ্যাপক শিশির কুমার ভট্টাচার্য এবং হালীমা-শরফুদ্দীন বিজ্ঞান পুরস্কারে  ভূষিত হয়েছেন নিসর্গী মোকারম হোসেন। ২ ডিসেম্বর সোমবার  বাংলা একাডেমির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর জানানো হয়।

কবিতায় সামগ্রিক অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ষাটের দশকের কবি মহাদেব সাহাকে ‘মযহারুল  ইসলাম কবিতা পুরস্কার-এ ভূষিত করা হয়। এক লাখ টাকা মূল্যমানের এই পুরস্কারের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ দিয়েছে প্রয়াত অধ্যাপক মযহারুল ইসলামের পরিবার। বাংলা একাডেমি ২০১০ সাল থেকে এ পুরস্কার দিয়ে আসছে।

সা’দত আলি আখন্দ সাহিত্য পুরস্কার ২০১৯ পেয়েছেন কথাসাহিত্যিক পাপড়ি রহমান । সমকালীন বাংলা সাহিত্যসেবীদের বিশিষ্ট অবদান ও তাদের সৃষ্টিশীল প্রতিভার স্বীকৃতিস্বরূপ ১৯৯০ সাল থেকে বাংলা একডেমি এ পুরস্কার দিয়ে আসছে। মৌলভি সা’দত আলী আখন্দের পরিবার এই পুরস্কারের অর্থ দিয়ে থাকে।

এবার মেহের কবীর বিজ্ঞান সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের সাবেক অধ্যাপক শিশির কুমার ভট্টাচার্য। এক লাখ টাকা মূল্যমানের এই দ্বিবার্ষিক পুরস্কারের অর্থ জাতীয় অধ্যাপক কবীর চৌধুরীর প্রদত্ত তহবিল থেকে দেওয়া হয়। বিজ্ঞানসাহিত্যে  জনপ্রিয় লেখকদের সামগ্রিক অবদান ও তাদের সৃজনী প্রতিভার স্বীকৃতিস্বরূপ ২০০৫ সাল থেকে এই পুরস্কার দিচ্ছে  বাংলা একাডেমি।

দ্বিবার্ষিক হালীমা-শরফুদ্দীন বিজ্ঞান পুরস্কার ২০১৯ পেয়েছেন নিসর্গী মোকারম হোসেন। অধ্যক্ষ  শইখ শরফুদ্দীন ও হালীমা বেগমের স্মৃতির উদ্দেশে প্রবর্তিত এই পুরস্কারের মূল্যমান ৩০ হাজার টাকা। এ ছাড়া সম্মাননাপত্র ও সম্মাননা স্মারক দেওয়া হয়। বাংলা ভাষায় জনপ্রিয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক গ্রন্থকারদের বিশেষ অবদান ও তাদের সৃষ্টিশীল প্রতিভার স্বীকৃতি দিতে ড. আবদুল্লাহ আল-মুতী শরফুদ্দীনের দেওয়া অর্থে বাংলা একাডেমি এ পুরস্কার দেয়।

আগামী ২৮ ডিসেম্বর বাংলা একাডেমির সাধারণ পরিষদের ৪২তম বার্ষিক সভায় আনুষ্ঠানিকভাবে  তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে বলে জানানো হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

Share This Post

Post Comment

%d bloggers like this: