খোঁজ মেলার পর গ্রেপ্তার কল্যাণ পার্টির মহাসচিব

আমিনুর রহমান গত ২৭ অগাস্ট রাতে ঢাকায় নয়া পল্টনের বাসা থেকে সাভারে নিজ বাড়িতে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হন। তার অন্তর্ধানে সরকারের হাত রয়েছে বলে সন্দেহ করে আসছিলের দলটির নেতারা।

নিখোঁজ কয়েকজনের ফিরে আসার মধ্যে মোবাইল ফোন ট্র্যাক করে শুক্রবার রাত পৌনে ১২টার দিকে ঢাকার শাহজাদপুরে প্রগতি সরণিতে তার অবস্থান শনাক্ত করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) উপকমিশনার শেখ নাজমুল আলম  বলেন, “তাকে (আমিনুর) উদ্ধার করার পর গুলশান থানার একটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।”

বিএনপির জোট শরিক দলটির এই নেতাকে নাশকতার একটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে বলে এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

তার নিখোঁজ হওয়ার কারণ এখনও জানা যায়নি।

ইতোপূর্বে ফিরে আসা নিখোঁজ ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, তাদের টাকার জন্য অপহরণ করা হয়েছিল।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলছেন, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সচেষ্ট বলেই নিখোঁজদের উদ্ধার করা যাচ্ছে।

সাবেক সেনা কর্মকর্তা সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহীম নেতৃত্বাধীন কল্যাণ পার্টি ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক।

 

তার অন্তর্ধানের পর বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গুম-খুনের জন্য সরকারকে দায়ী করে বলেছিলেন, “সন্দেহ করা হচ্ছে তাকেও (আমিনুর) একই পরিণতি বহন করতে হয়েছে, তিনি গুম হয়েছেন।

 

 

Share This Post

Post Comment

%d bloggers like this: